Breaking News

৮ লাখ টাকা কাবিনে জামাই বিয়ে করলেন শাশুড়িকে!

টাঙ্গাইলের সখীপুরে সেই উকিল মে’য়ের জামাই সাইদুল ইসলাম (৪৫) তার শাশুড়িকে (৫০) বিয়ে করেছেন। গত কয়েক দিন আগে ৮ লাখ টাকা কাবিনে এ বিয়ে সম্পন্ন হয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য মজিবুর রহমান ফকির বি’ষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, গত ২৯ জুন সোমবার বিয়ের দাবিতে উকিল মে’য়ের জামাই সাইদুল ইসলামের বাড়িতে ওই শাশুড়ি অ’নশন করেন। সাইদুল উপজে’লার কালিয়া ইউনিয়নের বড়চওনা-কুতুবপুর কলেজ মোড় এলাকার আবুল কারীর ছেলে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মজিবুর রহমান ফকির বলেন, উকিল শাশুড়ির স’ঙ্গে সাইদুলের প’রকীয়া সম্প’র্ক থাকায় প্রথম স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যায়। সম্প্রতি সাইদুলের স’ঙ্গে ওই উকিল শাশুড়ি আ’পত্তিকর অবস্থায় স্থানীয়দের কাছে ধরা খায়। পরে বিয়ের দাবিতে ওই না’রী উকিল জামাইয়ের বাড়িতে অ’নশন করেন। অ’নশনের কিছুদিন পরে সাইদুল তার উকিল শাশুড়িকে জে’লা আ’দালতে গিয়ে ৮ লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে করে।

স্থানীয়রা জানান, সাইদুলের প্রথম বিয়ের উকিল শ্বশুর হন ওই ইউনিয়নের শাপলা পাড়া গ্রামের ডাবলু মিয়া। এরই সুবাদে সাইদুল ডাবলুর বাড়িত নিয়মিত যাওয়া আসা করত।

একপর্যায়ে ডাবলু মিয়ার স্ত্রীর স’ঙ্গে সাইদুলের প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে ওঠে। পরে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধ-র্ষণ করে। এক পর্যায়ে উকিল শাশুড়ি বিয়ের দাবিতে উকিল মে’য়ের জামাইয়ের বাড়িতে অ’নশন করেন।

অ’নশনের সময় ওই গৃহবধূ জানিয়েছিলেন, সাইদুল তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ধ-র্ষণ করে আসছিলো। পরে তাকে বিয়ের কথা বলা হলে নানা তালবাহা’না করে। উপায়ান্তর না পেয়ে বিয়ের দাবিতে তার বাড়িতে আসছেন।

যেখানে বিক্রি হচ্ছে উকুন, প্রতি উকুনের মূ’ল্য ৩০০টাকা

মাথায় যাতে কোনো ভাবেই উকুন না হয় এর জন্য সবার চেষ্টার কমতি থাকে না। উকুন তাড়াতে বিভিন্ন রকমের দামী প্রসাধ’নী ব্যবহার করেন অনেকেই। কিন্তু অবাক করা বি’ষয় হলো, এমন এক দেশ রয়েছে যেখানে মাথায় উকুন পোষা হয় এবং তা বিক্রি করা হয়।

দুবাইতে অধিক হারে বিক্রি হয় এই উকুন। তাও যেমন তেমন মূ’ল্যে নয়। এক উকুনের মূ’ল্য ১৪ দেরহাম। বাংলাদেশি টাকায় যার মূ’ল্য ৩০০ টাকা। গবে’ষণায় দেখা গেছে, মাথার উকুন চুল ও শ’রীর স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারি। এতে চুল পড়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

চুল মজবুত থাকে এবং শ’রীর স্বাস্থ্যবান রাখে।এ খবর ছড়াতেই দুবাইতে উকুনের কদর বেড়ে গেছে। না’রীরাও তাদের মাথায় উকুনের যত্ন নিচ্ছেন উকুন বাড়াচ্ছেন। বলা যায় মাথায় উকুন পালন শুরু করেছেন।

আরো জানা যায়, উকুনের চা’হিদা বাড়ায় দুবাইয়ের সেলুনগুলো উকুন বিক্রি শুরু করেছেন। যাদের মাথায় বেশি উকুন সেগুলো কিনে বিক্রি করছেন অন্য না’রীদের কাছে।

তবে উকুন বিক্রির এই খবর জানাজানি হওয়ার পর দুবাইয়ের হেলথ কন্ট্রোল সেকশন বলেছেন, উকুন বিক্রির সি’দ্ধান্তটি অন্যায়। যাকে এ কাজে পাওয়া যাবে তাকে জরিমানা করা হবে।

Share