ধর্মের অপব্যাখ্যাকারীদের সহ্য করা হবে না: শিক্ষামন্ত্রী

ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে যারা ইতিহাস-ঐতিহ্যের ও’পর আ’ঘাত হানতে চায়, তাদের কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না বলে হুঁশিয়ার করেছেন শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) সকালে মিরপুর বাংলা কলেজে বঙ্গবন্ধু এবং বদ্ধভূমির স্মৃ’তি ফলক ও মুক্তিযু’দ্ধ কর্নার উদ্বোধ’নী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

এ সময়, ধর্ম নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো গোষ্ঠীর বি’রুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার থাকার আহ্বান জানান শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি বলেন, সব ধর্মের মানুষ যার যার মতো করে ধর্ম পালন করবে। শান্তি বজায় রাখবে। তাতে কোনো বা’ধা নেই, দিতেও পারবে না। কিন্তু ধর্মের নামে কোনো অপব্যাখা বা ইতিহাস ন’ষ্টের পায়তারা করলে তা সহ্য করা হবে না।

আল্লাহর ঘর কাবাকে ভা’স্কর্য বলায় ঐ মৌলভি ‘কা’ফের ও মু’রতাদ’ হয়ে গেছে: এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী

জৈনপুরী দরবারের পীর ও ইসলামী বক্তা মুফতি এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী বলেন, আল্লাহর ঘর কাবাকে যে মৌলভি ভাস্কর্য বলেছে আল্লাহর কসম করে বলছি ঐ মৌলভি আর ব্রাহ্মণ এর মধ্যে কোন পার্থক্য নাই।এটা কোন মু’সলমানের কথা হতে পারে না। নিঃন্দে’হে এটা কুফর হয়েছে মৌলভি কাফের ও মুরতাদ হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, যে মৌলভি সম্মি’লিত ইসলামী ঐক্যজটের দোহায় দিয়ে আল্লাহর ঘর কাবাকে ভাস্কর্য বলেছে এই জনসমুদ্র থেকে আমি ঘোষণা করছি তার ইমান ন’ষ্ট হয়েছে সে মুরতাদ হয়েছে সে কাফেরে পরিনত হয়েছে।ইসলামী ঐক্যজট নাম দিয়ে ধোকা দেওয়া চলবে না তার মত মৌলভিকে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদে যোগ দিতে বলব।

আমরা ভাস্কর্যের বি’রুদ্ধে, বঙ্গবন্ধুর বি’রুদ্ধে নই: মামুনুল হক
বাংলা”দেশের স্বাধীনতার মহান নেতা ও স্থ’পতি বঙ্গ’বন্ধু শেখ মুজিবুর রহ’মানকে মু’সলিম নেতা হি’সেবে প’রিপূর্ণ শ্রদ্ধা করি এবং তার রু’হের মাগ’ফেরা’ত কামনা ক’রি।

কখনো কো’নোভা’বেই এমন এ’কজন প্রয়াত ম’রহুম জাতী’য় নেতার বি’রুদ্ধা’চারণ করি না, করা সমী’চীনও মনে করি না।আবা’রো স্প’ষ্ট করে বলছি আমাদের বক্তব্য ভাস্ক’র্যে’র ‘রু’দ্ধে, কোনো’ভা’বেই বঙ্গবন্ধু’র বিরু’দ্ধে নই।

রো’ববার (২৯ নভেম্বর) দু’পুরে বাংলা’দেশ খেলাফত মজ’লিসের কে’ন্দ্রীয় কার্যা’লয়ে সংবাদ সম্মে’লনে হেফা’জতে ইসলামীর যুগ্ম-মহাস’চিব ও বাংলা’দেশ খেলা’ফত মজ’লিসের মহাস’চিব মাও’লানা মামু’নুল হক একথা বলেন।

তিনি বলেন, কিছু’দিন ধরে ঢা’কার ধো’লাইপা’ড়ে বঙ্গ’বন্ধুর ভাস্ক’র্য নির্মা’ণের ইস্যু নিয়ে ক্ষু’ব্ধ হয়ে উঠেছে শান্তিপ্রিয় তৌহি’দী জনতা। স্বা’ভাবিকভা’বেই ইসলা’মি দৃষ্টি’কোণ থেকে মানুষ কিংবা প্রা’ণীর ভা’স্কর্য নির্মাণ অনৈসলামিক সংস্কৃতি হওয়ায় আলে’ম সমাজ এর প্রতি’বাদ করছে।

সেই সূত্রে আ’মিও ভাস্ক’র্য তথা মূর্তি নি’র্মাণের বি’রুদ্ধা’চারণ করে আ’মার বক্তব্য তুলে ধরেছি। কিন্তু সু’কৌশ’লে একটি মহল ভা’স্কর্য নি’র্মাণের এই বি’রো’ধিতাকে ব’ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমা’নের বি’রোধি’তা বলে আখ্যা’য়িত করা’র চেষ্টা করছে। এ বি’ষয়ে আমার বক্তব্য দ্ব্যর্থ’হীন।”

মামু’নুল হক বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে কিছু ভু’ল ত’থ্যের ভি’ত্তিতে আমা’কে মাহফি’ল করতে বা’ধা দে’ওয়া হচ্ছে। সর’কারদ’লীয় কিছু সংগঠন আমার বি’রুদ্ধে আন্দো’লন করছে। আমার রাজ’নৈ’তিক ও আ’দর্শিক অবস্থা’নসহ জাতির সামনে নিজের বক্তব্য তু’লে ধরা জ’রুরি মনে করছি।

‘আপ’নারা আমার পারিবা’রিক প’রিচয় সম্প’র্কে অবগত। আ’মার বাবা উ’পমহা’দেশে’র প্রখ্যাত হাদি’স বিশারদ ও বাংলা’দেশের একজন জা’তীয় নেতা মরহুম শায়খুল হাদি’স আল্লামা আজি’জুল হক।

যিনি চার’দলীয় জো’টের শী’র্ষ চার নেতার অন্যতম এক’জন ছিলেন এবং তার দেওয়া আ’দর্শি’ক পাঁচ দ’ফার স’ঙ্গে একমত হয়েই ২০০৬ সালে আওয়া’মী লীগ খেলাফত মজ’লিসের স’ঙ্গে স’মঝো’তা চুক্তি সই করেছিল। ’

তিনি বলেন, আমার বাবা ধর্মীয় ও রাজনৈতিক যুগপৎ একটি ঐতি’হাসিক ধারার প্রতিনিধিত্ব করে গেছেন, যা উপম’হাদে’শে দেও’ব’ন্দি ধারা হি’সাবে সুপরি’চিত। আমিও সেই ধারারই একজন রাজ’নৈতিক কর্মী। বৃহত্তর সা’মাজিক ও রাজনৈ’তিক অ’ঙ্গনে ইসলামের বিজয় প্রতিষ্ঠার মা’ধ্যমে দেশ, জাতি ও মানবতা’র ক’ল্যাণ সা’ধ’নই আমার রাজ’নৈতিক লক্ষ্য।

‘স্বচ্ছ রাজনৈ’তিক প্র’ক্রিয়া’র মাধ্যমে লক্ষ্য অর্জনের চেষ্টা চা’লানোই আমার ব্রত। কোনো ষড়য’ন্ত্র অ’থবা গো’পন আঁতা’তের মাধ্যমে দেশ, রাষ্ট্র কিংবা সরকা’রবি’রোধী কোনো কর্মসূচি আমাদের নেই।তিনি বলেন, অতীতে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জোটবদ্ধ রাজনীতিতে ভূমিকা রাখলেও বর্তমানে আমাদের সংগঠন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ও ব্যক্তিতভাবে আমি কোনো রাজনৈতিক জোটে যুক্ত নই।

আ’মাদের এমন স্পষ্ট রাজনৈতিক অবস্থান থাকা সত্ত্বেও লক্ষ্য করছি একটি মহল ষ’ড়য’ন্ত্রমূ’লক’ভাবে আমি ব্যক্তি মামুনুল হককে স’রকারের মুখো’মুখি দাঁড় ক’রানো’র পাঁয়তারা চালাচ্ছে।

এজন্য জামায়াত-শি’বিরের রা’জ’নৈতিক এজেন্ডা বাস্ত’বায়নে’র অ’মূ’লক ও কল্পি’ত অভি’যোগ আ’মার উপর চা’পিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। আমি এই ষড়’য’ন্ত্রের তীব্র নি’ন্দা জানাচ্ছি।

মামুনুল আরো বলেন, আমি আশা করব অ’নভিপ্রে’ত সব অ’পতৎপরতা বন্ধ হবে। একই স’ঙ্গে শায়খু’ল হাদিস আল্লামা আজিজু’ল হক ও সৈয়দ ফ’জলুল করি’ম পীর সাহেব চ’রমো’নাই’য়ের বিরু’দ্ধে কটূক্তি ও বি’ষো’দগারে ব্যা’পারে প্রশাস’ন যথাযথ পদক্ষেপ নেবে।

Updated: 01/12/2020 — 6:12 PM